বাংলার সংস্কৃতি অনুচ্ছেদ রচনা

বাংলার সংস্কৃতি

‘সংস্কৃতি’ হলো পরিশীলিত জীবনবোধ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছেন, ‘কমল হীরের পাথরকে বলে বিদ্যে আর তা থেকে যা ঠিকরে বেরোয় তাকে বলি কালচার।’ মোতাহার হোসেন চৌধুরী বলেছেন, ‘সংস্কৃতি মানে বাচা, সুন্দরভাবে বাচা।’ ড. আহমদ শরীফ সংস্কৃতির সংগা দিয়েছেন- ‘পরিশীলিত ও পরিশ্রুত জীবন চেতনাই সংস্কৃতি।’ হাজার হাজার বছরের ইতিহাস, ঐতিহ্য, শিল্প-সাহিত্য, ও ধর্মীয় ভাবের সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে বাংলার সংস্কৃতি। এই বাংলায় অতীতে বিভিন্ন  জাতি-গোষ্ঠীর মানুষ এসেছে, কেও ব্যবসা বানিজ্য করতে, কেও ধর্ম প্রচার করতে, কেও এসেছে এদেশের সৌন্দর্যে আকৃষ্ট হয়ে। তাদের আচার-সংস্কৃতির সংমিশ্রণে গড়ে উঠেছে নিজস্ব সংস্কৃতি; যা জীবনচারণ, শিল্প-সাহিত্যে প্রকাশ পেয়েছে। বাঙালির মানুষ গঠনেও বড়ো ভুমিকা রেখেছে। সহজ, সরল ও ভাবুক বাঙালিই প্রয়োজনে হয়ে ওঠে সাহসী, একনিষ্ঠ, নির্ভীক, নিজস্ব ধর্মবোধ বজায় রেখে বাঙালি অসাম্প্রদায়িক চেতনার অধিকারী হয়ে থাকে। বাঙালির নিজস্ববোধের পরিচয় ফুটে ওঠে তার মানবতাবাদী চেতনায়; যা বাঙালি পেয়েছে সুফি ও বৈষ্ণব ভাবের মিলিত রুপ বাউল ভাবনায়। বাংলার বৃহৎ জাতীগোষ্টীর সংস্কৃতিও সমৃদ্ধ করেছে বাংলার সাংস্কৃতিকে; বাঙালির শিল্প-সাহিত্য, উৎসব-অনুষ্ঠান ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সংস্কৃতিকে বৈচিত্র্য দান করেছে। সংস্কৃতি বহমান, তাই বাংলার সংস্কৃতি নিজস্বতা বজায় রেখে সময়ের দাবিকে পুরণ করে স্বমহিমায় বয়ে চলেছে যুগ যুগ ধরে।

2+

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *